৪১তম বিসিএস সার্কুলার- আবেদন শুরু ৫ ডিসেম্বর

Published by Abdul Awal Ripon on

ক্যাডারসমূহের যোগ্যতা ও পদসংখ্যা

কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অথবা স্বীকৃত বোর্ড হতে এইচ.এস.সি পরীক্ষা পাসের পর ৪ (চার) বছর মেয়াদি শিক্ষা সমাপনী ডিগ্রি অথবা সমমানের ডিগ্রি । তবে কোনো প্রার্থীর শিক্ষা জীবনে একাধিক ৩য় বিভাগ/শ্রেণি বা সমমানের জিপিএ থাকলে তিনি যোগ্য বিবেচিত হবেন না।

বিস্তারিত যোগ্যতা ও পদের সংখ্যার জন্য বিজ্ঞপ্তিটি ডাউনলোড করুনঃ

৪১তম বিসিএস সার্কুলার ডাউনলোড

অনলাইনে বিসিএস আবেদনপত্র পূরণ ও ফি জমাদানের তারিখ ও সময়

  • আবেদনপত্র পূরণ ও ফি জমাদান শুরুর তারিখ ও সময় : ০৫.১২.২০১৯ তারিখ সকাল ১০:০০ টা।
  • আবেদনপত্র জমাদানের শেষ তারিখ ও সময় : ০৪.০১.২০২০ তারিখ সন্ধ্যা ৬:০০ টা।
  • আবেদনপত্র জামাদানের শেষ তারিখ : ০৪.০১.২০২০ তারিখ সন্ধ্যা ৬:০০ টার মধ্যে।

শুধুমাত্র User ID  প্রাপ্ত প্রার্থীগণ উক্ত সময়ের পরবর্তী ৭২ ঘণ্টা (অর্থাৎ ০৭.০১.২০২০ তারিখ সন্ধ্যা ৬:০০ টা পর্যন্ত) SMS এর মাধ্যমে (বিজ্ঞপ্তির ৯ নম্বর অনুচ্ছেদের নির্দেশনা অনুসরণ করে) ফি জমা দিতে পারবেন। নির্ধারিত তারিখ ও সময়ের পর কোনো আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে না।
বিশেষ দ্রষ্টব্য : শেষ তারিখ ও সময়ের জন্য অপেক্ষা না করে হাতে যথেষ্ট সময় নিয়ে আবেদনপত্র জমাদান চূড়ান্ত করতে ও নির্ধারিত ফি জমাদান করতে পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে।

বয়সসীমা : ১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে বয়স :

  • মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র-কন্যা, প্রতিবন্ধী প্রার্থী এবং বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের প্রার্থী ছাড়া অন্যান্য সকল ক্যাডারের প্রার্থীর জন্য বয়স ২১ হতে ৩০ বছর (জন্মতারিখ সর্বনিম্ন ০২.১১.১৯৯৮ সর্বোচ্চ ০২.১১.১৯৮৯ পর্যন্ত)
  • মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র-কন্যা, প্রতিবন্ধী প্রার্থী এবং বিসিএস(স্বাস্থ্য) ক্যাডারের প্রার্থীর জন্য বয়স ২১ হতে ৩২ বছর (জন্মতারিখ সর্বনিম্ন ০২.১১.১৯৯৮ সর্বোচ্চ ০২.১১.১৯৮৭ পর্যন্ত)
  • বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের জন্য শুধু ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী প্রার্থীর বেলায় বয়স ২১ হতে ৩২ বছর (জন্মতারিখ সর্বনিম্ন ০২.১১.১৯৯৮ সর্বোচ্চ ০২.১১.১৯৮৭ পর্যন্ত)।

প্রার্থীর বয়স কম বা বেশি হলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।

নাগরিকত্ব

প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। সরকারের পূর্বানুমতি ব্যতিরেকে কোনো প্রার্থী কোনো বিদেশি নাগরিককে বিবাহ করলে বা বিবাহ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হলে তিনি বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণের অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। সরকারের পূর্বানুমতি গ্রহণের ক্ষেত্রে অনুমতিপত্র মৌখিক পরীক্ষার দিন মৌখিক পরীক্ষার বোর্ডে অবশ্যই জমা দিতে হবে।

লিঙ্গ নির্বিশেষে বাংলাদেশের যে কোনো নাগরিক বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যোগ্য বিবেচিত হবেন।
প্রজাতন্ত্রের কর্মে অথবা স্থানীয় কর্তৃপক্ষের অধীন চাকরিরত প্রার্থীগণের মধ্যে যোগ্যতাসম্পন্ন প্রার্থীরা নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমতিপ্রাপ্ত হলে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

অনলাইনে বিসিএস আবেদন ফরম পূরণ পদ্ধতি :
প্রার্থীকে http://bpsc.teletalk.com.bd/ ওয়েবসাইটে গিয়ে নির্ধারিত আবেদন ফরম পূরণ করে রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম এবং নির্ধারিত ফি জমাদান সম্পন্ন করতে হবে। উল্লিখিত ওয়েবসাইট ওপেন করলে ৪১তম বিসিএস-এর
Advertisement, Instructions for Submitting Application এবং Cadre Option-এর ভিত্তিতে   তৈরিকৃত ৩
ক্যাটাগরি পদের জন্য নির্ধারিত Application Form  এর রেডিও বাটন দৃশ্যমান হবে।
Advertisement এর রেডিও বাটন ক্লিক করলে ৪১তম বিসিএস এর বিজ্ঞপ্তি পাওয়া যাবে।

 


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *