ইংরেজি শেখার ১০টি সহজ উপায়

এখন ঘরে বসেই আপনি বিশ্বমানের ইংরেজি শিখতে পারবেন। জানুন ইংরেজি শেখার সহজ উপায়সমূহ।

ইংরেজি শেখার সহজ নিয়ম

ছাত্র-ছাত্রী বা চাকরিজীবি সবারই ইংরেজি জানতে হবে। ইংরেজি হচ্ছে বিশ্বের দরজা। ইংরেজি না জানলে সারা বিশ্ব আপনার জন্য নয়। আর ইংরেজি জানবেন তো সারা বিশ্ব আপনার।

শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় ভালো নম্বর তোলার জন্য ইংরেজি প্রয়োজন, অপরদিকে চাকরিজীবিদের প্রমোশনোর জন্য ইংরেজিতে দক্ষতা দরকার।

বিশ্বে টিকে থাকার অন্যতম একটি দক্ষতা হচ্ছে ইংরেজি জানা। তাই সহজেই ইংরেজি শেখার কয়েকটি উপায় নিয়ে আজকে আলোচনা করলাম।

এখনকার সময়ে ইংরেজিতে দক্ষতা থাকলে ভালো চাকরি ও বিদেশে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাওয়া যায়। এছাড়া কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আছে যারা কেবল ইংরেজির ওপরই আলাদা স্কলারশিপ দিয়ে থাকে।

ইংরেজি জানলে আপনার জন্য সারা সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে, ইংরেজি শেখার প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব কতখানি।

ইংরেজি শিখলে এত সুবিধা অথচ সেই ইংরেজি দেখলেই আমরা ভূত দেখার মত ভয় পাই। আমারা কয়েকটি হিন্দি সিনেমা দেখলে হিন্দী ভাষা শিখে যাই, অথচ ১০/১২ বছর পাঠ্যবইয়ে পড়ার পরও ইংরেজি শিখতে পারি না। ইংরেজি কি আসলেই এত কঠিন?

একদমই না। বাংলার মত ইংরেজিও একটি ভাষা। বরং এটি আরো সহজ একটি ভাষা। কিন্তু সঠিক পদ্ধতিতে না শেখার কারণেই আমরা এ ভাষাটি আয়ত্বে আনতে পারি না। আজ ২৪ বছর বয়সে সর্বোচ্চ ডিগ্রি মাস্টার্স পাস করেও আমরা ইংরেজি বলা তো দূরে থাক, পড়েই বুঝিনা কি লেখা আছে।

কিভাবে ইংরেজি শিখবো?

কিভাবে ইংরেজি শিখবো? এই প্রশ্নটা সবার। সঠিক উপায়ে ও আন্তরিকভাবে ইংরেজি না শিখার কারণেই আমরা অনেকে হাজার চেষ্টা করেও ইংরেজি রপ্ত করতে পারি না।

তো সঠিক উপায়টা কি? সঠিক উপায় হচ্ছে, আমরা যেভাবে বাংলা শিখেছি সেভাবেই ইংরেজি শিখতে হবে। ইংরেজি শিখতে আপনাকে সব ইংরেজি শেখার প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র আপনি সারাদিন যা করেন যা বলেন তাই ইংরেজিতে শিখবেন।

কিন্তু আমরা সেটা না করে, অনেকে গ্রামার শেখা শুরু করি, অনেকে স্পোকেন ইংলিশ বই পড়া শুরু করি। কোনটিই সঠিক পদ্ধতি নয়।

ইংরেজি শেখার জন্য অবশ্যই আপনাকে আপনার সারাদিনের কথা বার্তায় ব্যবহৃত শব্দগুলোর ইংরেজি জানতে হবে। একই সাথে কাউকে প্রশ্ন করা, উত্তর দেয়া কোন কিছু বর্ণনা দেয়া এসব শিখতে হবে প্রথমে।

তারপর, প্রচুর পরিমাণে ইংরেজি শুনা, সেগুলো নিজে নিজে আওড়ানোর (নিজে নিজে কথা বলা) অভ্যাস করতে হবে ও Vocabulary শিখতে হবে। সবশেষে গ্রামার ও ইংরেজি লেখা চর্চা করতে হবে।

আসুন জানি ইংরেজি শেখার সহজ উপায়গুলো কি।

ইংরেজি শেখার সহজ উপায়

  1. গ্রামারের উপরে নির্ভর করে ইংরেজি শিখবেন না
  2. প্রচুর ইংরেজি ডায়ালগ পড়ুন
  3. দৈনিক কিছু Vocabulary শিখুন
  4. ইংরেজি Cartoon ও Movie দেখুন
  5. ইংরেজি সংবাদপত্র পড়ুন ও শুনুন
  6. Spoken English শিখুন
  7. শুদ্ধভাবে বলা ও লেখার জন্য Basic Grammar শিখুন
  8. নিজের সাথে কথা বলুন
  9. English Learning App ব্যবহার করুন
  10. ইংরেজিতে লেখালেখি করুন

১. গ্রামারের উপরে নির্ভর করে ইংরেজি শিখবেন না

একজন লেখাপড়া না জানা ব্যক্তিকে যদি আমেরিকায় পাঠানো হয় তাহলে কি সে ৬ মাস থেকে ১ বছরের মধ্যে ইংরেজিতে মোটামুটি Fluent হয়ে যায় না? এটা কি সে কি গ্রামার শিখে করে?

না, শুধুমাত্র অন্যদের কথা শুনেই এবং তাদের সাথে ইংরেজিতে কথা-বার্তা বলেই সে এটা শিখে।

মনে রাখবেন, গ্রামার কোন ভাষা শেখার জন্য নয় বরং ভাষার শুদ্ধ ব্যবহারের জন্য। আগেতো ভাষা শিখতে হবে, তারপর শুদ্ধ-অশুদ্ধ ঠিক করার জন্য গ্রামার শেখা যায়।

যেভাবে গ্রামার না জেনেই আমরা বাংলা শিখি, সেভাবে ইংরেজিও শুনা ও বলার মাধ্যমেই শিখতে হবে।

সুতরাং আপনি যদি ইংরেজি শেখার শুরুতেই গ্রামারের দিকে ফোকাস করতে যান তাহলে আপনার ইংরেজি শেখার গতি অনেক স্লো হয়ে যাবে এবং সহজেই হতাশ হয়ে পড়বেন।

মজার ব্যাপার হচ্ছে ন্যাটিভ ইংলিশ স্পিকারদের ৮০% ই গ্রামার ভালো জানেন না। তাই ইংলিশ শিখতে গেলে শুরুতেই গ্রামারের দিকে ফোকাস করা বাদ দিতে হবে। তবে কিছুটা ইংরেজি শেখার পর শুদ্ধভাবে লেখা ও বলার জন্য গ্রামার শিখতে পারেন।

২. প্রচুর ইংরেজি Dialogue পড়ুন

High School এর বইতে বিভিন্ন বিষয়ে Sample Dialogue থাকে। এসব ডায়ালগ গুলো বুঝে বুঝে পড়ুন এবং খেয়াল করে দেখুন কোন পরিস্তিতিতে কিভাবে কথোপকথন করা হচ্ছে।

ডায়ালগ থেকে আমরা শিখতে পারবো, কিভাবে কোন মানুষের সাথে প্রথমে কথা শুরু করতে হয়, কিভাবে প্রশ্ন করতে হয়, কিভাবে প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়।

তাছাড়া, বিভিন্ন দৈনন্দিন কার্যকলাপ ও অবস্থার পরিপেক্ষিতে এসব ডায়ালগ থেকে আপনি পর্যাপ্ত পরিমানে দৈনন্দিন ব্যবহৃত প্রচুর ইংরেজি শব্দ (Daily Used Words) শিখতে পারবেন।

৩. দৈনিক কিছু Vocabulary শিখুন

আপনি যখন কোন একটি ভাষা শিখতে যাবেন, সেই ভাষার শব্দ ভাণ্ডার আগে আপনাকে আয়ত্বে আনতে হবে। এমনকি মাতৃভাষা বাংলাও শব্দের ব্যবহার ছাড়া অসাড়। তাই ইংরেজিতে অনর্গল কথা বলার জন্য প্রচুর Vocabulary মুখস্থ রাখুন।

Vocabulary আপনার ভেতরে শব্দের এক শক্তিশালি বেইস তৈরি করবে। ফলে ইংরেজি বলার সময় কোন শব্দগুলো কোথায় ব্যবহার করতে হবে, তা সম্পর্কে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন।

একটি ইংরেজি শব্দ সাধারণ ৪ ধরণের হয়ে থাকে, Noun (কি?), Verb (কাজ), Adjective (কেমন), Adverb (কিভাবে)। যেমন,

  1. Noun > কি? > সৌন্দর্য্য – Beauty
  2. Verb > কাজ > সুন্দর করা – Beautify
  3. Adjective > কেমন? > সুন্দর – Beautiful
  4. Adverb > কিভাবে? > সুন্দরভাবে – Beautifully

Vocabulary শেখার ক্ষেত্রে শুধু Beauty মানে শিখলেই হবে না বরং Beauty এর অন্যান্য শব্দ ও এদের ব্যবহারগুলো শিখে নিতে হবে। এভাবে শিখলেই শব্দ আপনার মনে থাকবে এবং সঠিকভাবে ব্যবহার করতে জানবেন।

৪. ইংরেজি Cartoon ও Movie দেখুন

ইংরেজিতে কথা বলার একটি স্মার্ট পদ্ধতি হচ্ছে ইংলিশ অ্যাকসেন্ট (বাচনভঙ্গি) অনুসরণ করা। ইংরেজি যাদের মাতৃভাষা, তাদের মত করে ইংরেজি বলতে চাইলে অবশ্যই তাদের বাচনভঙ্গি আয়ত্বে আনতে হবে।

যেমন আমরা বলি Education (এডুকেশন)। কিন্তু একজন আমেরিকান এই একি শব্দকে বলবে এজুকেইশন

যেহেতু সরাসরি আপনার কোন Native English Speaker এর সাথে কথা বলার সুযোগ নাই, তাই ইংরেজি সিনেমা বা টেলিভিশন সংবাদ হতে পারে অন্যতম সুযোগ। সিনেমা দেখে আপনি English Accent রপ্ত করতে পারেন।

শুরুতেই আমেরিকান মুভিগুলো না দেখা ভালো। কারণ, শুরুতেই এসব এডভান্স মুভির ডায়লগ আপনার জন্য সহজ মনে হবে না। তাই শুরু করুন উপমহাদেশীয় ইংরেজি Cartoon/Short Film/ Movie দিয়ে। এগুলোর ডায়ালগ নতুনদের জন্য বুঝতে অনেকটা সহজ হবে।

৫. ইংরেজি সংবাদপত্র পড়ুন

সংবাদপত্র যেকোন ভাষার অফুরন্ত এক তথ্য ভাণ্ডার। আপনি যখন কোন একটি ভাষার পত্রিকা পড়েন, তখন ওই ভাষার অনেক কিছুই আপনার জানা হয়ে যায়। ইংরেজির ক্ষেত্রেও ঠিক তাই।

সুতরাং ইংরেজি শেখার জন্য প্রতিদিন একটি ইংরেজি সংবাদপত্র পড়তে না পারলেও। সপ্তাহে অন্তত একটি ইংরেজি পত্রিকা কিনবেন এবং সারা সপ্তাহ ধরে প্রত্যেকটি সংবাদই পড়া এবং তার মধ্যে থাকা নতুন শব্দগুলো শিখে নিবেন।

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ কিছু ইংরেজি সংবাদপত্র হচ্ছে The Daily Star, The Asian Age, The Bangladesh Observer ইত্যাদি। যেকোন একটি সংগ্রহ করুন এবং অর্থ বুঝে বুঝে সম্পূর্ণ পত্রিকাটি পড়ুন।

এতে করে আপনার নতুন নতুন প্রয়োজনীয় শব্দ জানা হবে, ইংরেজি লেখার টেকনিকও শেখা হবে পাশাপাশি দেশ-বিদেশের সংবাদও জানা হবে।

৬. Spoken English শিখুন

ইংরেজির প্রয়োগ হচ্ছে বলা ও লিখা। ইংরেজি শিখলেন কিন্তু কোথাও বলার প্রয়োজনে তা পারলেন না। এর মানে আপনার ইংরেজি শেখা হয় নি। তাই ইংরেজি বলার চর্চা আপনাকে শুরু থেকেই করতে হবে।

ইংরেজি বলার জন্য জন্য আপনাকে কয়েকটি বিষয় শিখতে হবে ও চর্চা করতে হবে। এগুলো হচ্ছে,

  • কিভাবে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে কথা শুরু করতে হয়
  • কিভাবে ইংরেজিতে প্রশ্ন করতে হয়
  • কিভাবে কারো প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়
  • কিভাবে ফোনে কথা বলতে হয়
  • কিভাবে একজন অপরিচিত ও পরিচিত ব্যক্তির সাথে কথা বলতে হয়
  • কিভাবে কোন ঘটনা বর্ণনা করতে হয়।
  • আপনার পেশা বা কর্মক্ষেত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট পরিস্থিতেত কথা বলার নিয়ম

এসব বিষয়গুলো শেখার পাশা-পাশি আপনাকে নিয়মিত চর্চা করে যেতে হবে।

৭. শুদ্ধভাবে বলা ও লেখার জন্য Basic Grammar শিখুন

ইংরেজিতে Formal English এবং Informal English এর একটি ব্যাপার আছে। বন্ধু বান্ধবের সাথে এবং চাকরীর ইন্টারভিউতে নিশ্চই আমরা একইভাবে কথা বলব না। সব পরিস্থিতেতে আপনি একইভাবে কথা বলতে পারবেন না।

শুদ্ধভাবে ইংরেজি বলতে ও লিখতে পারার জন্য আপনার মৌলিক কিছুটা English Grammar জানা দরকার। এর মধ্যে জরুরী হচ্ছে, Sentence Structure, Parts of Speech, Tense, Voice ইত্যাদি।

ইংরেজিতে মোটামুটি কিছু দক্ষতা অর্জন করার পর এসব শিখা শুরু করতে পারেন। তবে একদম শুরুতেই এসবের উপর নির্ভর করে ইংরেজি শিখা উচিত নয়।

৮. নিজের সাথে কথা বলুন

বিভিন্ন সময় নিজে মনে মনে বা স্বশব্দে প্রশ্ন করুন ও তার উত্তর দিন। কোন ডায়ালগ বার বার স্বশব্দে বলে তা রপ্ত করে নিতে পারেন। এভাবে একটি বাক্য বারবার বলার কারণে বাক্যটি নিয়ে আপনার জড়তা কেটে যাবে। এরফলে প্রয়োজনের সময় ইংরেজি বলতে আপনি আটকে যাবেন না।

অনেক সময় দেখা যায়, আমরা ইংরেজিতে কথা বলার সময় জানা বাক্যগুলোও এলোমেলো হয়ে যায়। কিন্তু আপনি যখন নিজে নিজে এসব বাক্য বারবার অনুশীলন করবেন, এই সমস্যাটি কখনোই হবে না। কারণ এসব বাক্য বারবার বলতে বলতে আপনার মুখেই লেগে আছে।

একা একা কথা বলার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে আপনি নিজের সাথে নিজে যা খুশি তাই বলতে পারেন। কোথাও জড়তা বা ঘাটতি থাকলে তা সংশোধন করে নিতে পারবেন।

তাই উঠতে-বসতে, হাঁটা-চলা করতে সবসময় নিজে নিজে ইংরেজি বলার অভ্যাস করুন। এটা আপনাকে তারাতারি দক্ষ করে তুলবে।

৯. English Learning App ও Website ব্যবহার করুন

আগের থেকে এখন ইংরেজি শেখা অনেক সহজ। এখন বিভিন্ন ওয়েবসাইট, মোবাইল অ্যাপ ও ইউটিউব Video ইংরেজি শিখতে সহায়ক। এখন কোন শব্দ শিখতে আর মোটা ডিকশনার বই খুঁজতে হয় না। শুধু টাইপ করেই শব্দের অর্থ শিখতে পারছেন Dictionary App থেকে।

Google Play Store এ এমন অনেক English Learning Android App আছে, যা দিয়ে আপনি সহজে এবং বিনামূল্যে ইংরেজি শিখতে পারবেন। এ অ্যাপগুলো বেসিক থেকে এডভান্সড সবার জন্য বেশ সুবিধাজনক। এমন কিছু অ্যাপ হতে পারে

উপরের প্রতিটি অ্যাপ একদম ফ্রি এবং সারাবিশ্বের লাখ লাখ মানুষের কাছে বেশ জনপ্রিয়। এর মধ্য কিছু অ্যাপ রয়েছে, যাতে আপনি Test দিতে পারবেন। আবার কিছু অ্যাপে বিশাল কমিউনিটির সাথে ইংরেজিতে কথা বলা Practice করতে পারবেন।

১০. ইংরেজিতে লেখালেখি করুন

প্রতিদিন আপনার যেকোন পরিচিত একটি টপিক নিয়ে যা জানেন কমপক্ষে ১০টি বাক্য লেখার অভ্যাস করুন। ১০ টি না পারলে শুরুতে ৫টি দিয়ে শুরু করুন। ধীরে ধীরে বাক্যের সংখ্যা বাড়ান।

আপনি যদি কম্পিউটারে লিখেন তার একটি সুবিধাও আছে। Microsoft Word বা Grammar Checker এর মাধ্যমে আপনি কোথায় ভুল লিখেছেন তা জানতে পারবেন। একইসাথে, ওই ভুল বাক্যের শুদ্ধ রূপ কি হবে তাও জানতে পারছেন। এর ফলে আপনার শুদ্ধ ইংরেজি লেখার দক্ষতা বাড়তে থাকবে।

শেষ কথা

সত্যিকার অর্থে ভালো করে কোনো কিছুর শেখার শেষ নেই। ভালোর কোনো সীমাবদ্ধতাও নেই। একজনের কাছে যা ভালো, অন্যের কাছে তা হয়তো সাধারন। তাই আপনি ইংরেজির যে লেভেলেই আছেন সেটা আরো ভাল করার জন্য একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে শেখা চালিয়ে যাওয়া ও নিয়মিত চর্চা করা।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কথা হচ্ছে, যেহেতু ইংরেজি আপনার মাতৃভাষা নয়। আপনি ইংরেজি শিখছেন, যে কোন ভুল হওয়া খুবই স্বাভাবিক একটি ব্যাপার। আপনি একজন আমেরিকানকে যদি ভুল ইংরেজি বলেন, তিনি আপনার ভুল ধরতে আসবে না তিনি সেটা সঠিকভাবে বুঝে নিবেন।

আপনি হয়তো বিদেশীকে বাংলা বলতে শুনেছেন, খেয়াল করুনতো তারা উচ্চারন বা বাক্যে কতটা ভুল করে আমরা কি সেটা ভুল ধরার জন্য কেউ বসে থাকি?

যেকোন ভাষার উদ্দেশ্যই হচ্ছে ভাব আদান প্রদান বা একে অপরের সাথে যোগাযোগ করা। তাই ভুল বলার বিষয়টি মাথায় না এনে বলতে থাকুন।